1. pirojpurpost24@gmail.com : admin :
  2. kumarshuvoroy@gmail.com : Shuvo Roy : Shuvo Roy
  3. epiropur@gmail.com : e p : e p
  4. eshuvo1@gmail.com : shuvo roy : shuvo roy
মহাসমারহে স্বরূপকাঠিতে খাল দখল চলছে | পিরোজপুর পোষ্ট ২৪
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১২:০০ পূর্বাহ্ন

মহাসমারহে স্বরূপকাঠিতে খাল দখল চলছে

  • শেষ হালনাগাদ : রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০১৯
  • ৫৫০ জন সংবাদটি দেখেছেন

সায়েম  আহমেদ : পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার স্বরূপকাঠীতে প্রতিনিয়ত নদী ও খাল দখলদারদের দৌড়াত্যে বেড়েই চলেছে । দখল হয়ে যাচ্ছে স্বরূপকাঠীর ছোট বড় প্রায় সব খালই । এতে নদী ও খাল কেন্দ্রীক অর্থনিতীতে যেমন বাঁধা সৃষ্টি হচ্ছে তেমনি জনজীবনেও ভোগান্তি বেড়েছে। কাঠ, পল্ট্রি, কৃষিসহ বিভিন্ন ব্যাবসায় অপরিহার্য এসব খালগুলো দখল হওয়ায় চলচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। উপজেলার শহীদ স্মৃতি বাজারে খালের মধ্যে ১২ টি দোকানঘর তুলে ভাড়া দেওয়ায় ওই খাল দিয়ে যাতায়াত করতে পারছেনা ইন্দেরহাটগামী পণ্যবাহি ট্রলার।

ওই দোকানের ব্যবসায়িরা জানান, তারা সাবেক সচিব মোঃ শামসুলহকের থেকে দোকানঘর ভাড়া নিয়েছেন এবং শহীদ স্মৃতি বাজারের মালিক তিনি একাই।

ট্রলার চালক আলম বলেন, শহীদ স্মৃতী বাজারের খালের ভিতর দোকানঘর তোলায় তিনি ট্রলার নিয়ে যাতায়াত করে পারেন না। প্রায় চার ঘন্টার পথ বেশি ঘুরে কালিগঙ্গা নদী হয়ে ইন্দেরহাট বাজারে যেতে হয়। এতে যাতায়াতের খরচ প্রায় পাঁচ গুন বেড়ে যায় এবং প্রতি ট্রিপে একদিন চলে যায়। যা দোকানঘর তোলার আগে মাত্র এক ঘন্টাই ইন্দেরহাট যাওয়া যেত।

১৯৬১ সালে প্রতিষ্ঠিত বিসিক শিল্প নগরীর একমাত্র খালটি দখল করে রেখেছে স্থাণীয় কাঠ ব্যাবসায়িরা। এতে পণ্য পরিবহনে বাঁধার সম্মুখিন হচ্ছেন এখানকার শিল্প মালিকগণ।

এ বিষয়ে বিসিক ম্যানেজার হারুন-অর-রশিদ বলেন, বিসিকের একমাত্র খালটি দখল মুক্ত করতে আমরা দখলদারদের নোটিশসহ মাইকিংও করিয়েছি কিন্তু সব বিঠলে গেছে।  উপজেলা সমন্বয় মিটিংএ এ বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার কথা বলেছি । এখন পর্যন্ত কোন সুরহা পাইনি।

এদিকে মিয়ারহাট বাজারের তিনটি কালভার্ট থাকলেও নেই খাল। দিনে দিনে খাল তিনটি খাল ভরাট করে দোকানঘর তৈরী করা হলেও কালভার্টের আজও বিদ্যমান। মিয়ারহাটের যানযট কমাতে খালপাড় থেকে বাইপাস সড়কের কাজও বন্ধ হয়ে আছে অবৈধ দখলের কারণে। বাজার থেকে ছোট লঞ্চঘাট পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ করে খালে লোহাপুল করা হলেও বাজারের উত্তর পাশের সরকারি খালের জায়গা দখল করে দোকানঘর করা দখলদারদের কারণে রাস্তাটি সে পর্যন্তই থেমে আছে।

সুটিয়াকাঠীর ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইদ্রীস আলী বলেন, দখলদারদের নোটিশ করা হয়েছে, একজন দখলদার জায়গা খালিও করেছে, বাকীদের ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পদক্ষেপ গ্রহন করবেন বলে জানিয়েছেন। এদিকে বিন্না বাজারে ক্লাব ও বিন্না মাঃ বিঃ মিলে খালের ভিতর দোকানঘর তুলে ভাড়া নেয়াসহ উপজেলার প্রতিটি বাজার- মহল্লায় যে যার মত করে খালে দোকানঘর তুলে ব্যাবসা বা ভাড়া নিচ্ছেন।

এসব বিষয়ে স্বরূপকাঠী কাঠ মহলের ব্যাবসায়িরা বলেন,খালগুলো দখল হওয়া এবং নাব্যতা না থাকায় কাঠ নিয়ে ট্রলার চলাচল করতে পারেনা। অপেক্ষাকৃত ছোট খালগুলো দিয়ে চলাচল করতে নাপারায় অনেক পথ বেশি ঘুরে আসতে হয় এতে আমাদের পরিবহন খরচ কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। পল্ট্রি ব্যবসায়িরা খাদ্য, ডিম ও মুরগী যাতায়াতে চরম ভোগান্তির কথাও জানান।

এ বিষয়ে সহকারি কমিশনার(ভূমি) মোঃ মেহেদি হাসান বলেন, স্বরূপকাঠীতে ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় এক হাজার খাল রয়েছে যা প্রতিনিয়ত দখলদাররা নিজ স্বার্থে দখল করে নিচ্ছে। খালগুলো এ উপজেলার অর্থনিতীতে ভূমিকা রাখছে, খালগুলোতে নৌকা চলাচল করে। প্রতিটি ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে তারা নিয়ম অনুযায়ী সরকারি সম্পদ দখলের বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিবেন এবং সে অনুযায়ী দখলদারদের নোটিশ দেয়া হবে। নোটিশ অমান্যকারিদের উচ্ছেদের মাধ্যমে সরকারি সম্পদ দখল মুক্ত করা হবে।

 

আরো সংবাদ
পিরোজপুর পোষ্ট ২৪ ডটকম - ২০১৮-২২। (অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের ছবি, ভিডিও ও সংবাদ কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Theme Customized By PIROJPURPOST24
কারিগরি সহায়তায়: Website-open
x