1. pirojpurpost24@gmail.com : admin :
  2. kumarshuvoroy@gmail.com : Shuvo Roy : Shuvo Roy
  3. epiropur@gmail.com : e p : e p
  4. eshuvo1@gmail.com : shuvo roy : shuvo roy
মঠবাড়িয়ায় একই পরিবারে ৩ প্রতিবন্ধির মানবেতর জীবন-যাপন | পিরোজপুর পোষ্ট ২৪
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

মঠবাড়িয়ায় একই পরিবারে ৩ প্রতিবন্ধির মানবেতর জীবন-যাপন

  • শেষ হালনাগাদ : শুক্রবার, ২ আগস্ট, ২০১৯
  • ৪৯০ জন সংবাদটি দেখেছেন

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ
মঠবাড়িয়ার ছোট শৌলা গ্রামের দরিদ্র আঃ মালেক মল্লিকের (৭২) পরিবারের ৫ সদস্যের মধ্যে ৩ জনই প্রতিবন্ধি। অর্থাভাবে চিকিৎসা না হওয়ায় মানবেতর জীবন-যাপন করছে প্রতিবন্ধি পরিবারটি। আঃ মালেক মল্লিক ছোট শৌলা গ্রামের মৃত মফেজ মল্লিকের ছেলে।
জানাগেছে, আঃ মালেক মল্লিকের ২ ছেলে ও ২ মেয়ে। ২য় সন্তান দেলোয়ার হোসেন (৩২) (সারা দেহে টিউমার) শারীরিক প্রতিবন্ধি এবং ৩য় সন্তান মাহমুদা বেগম (২৮) ও মাহমুদার ছেলে বাদশা ফাহাদ (০৮) দৃষ্টি প্রতিবন্ধি। দেলোয়ার হোসেন মাথায় লাইপোমা টিউমার (এই টিউমার চামড়ার নিচে থাকে মাংসের সাথে সংযোগ থাকে না) নিয়েই জন্ম গ্রহণ করেছে। বয়স বাড়ার সাথে সাথে টিউমারের আকারও বড় হতে থাকে। ১০ বছর বয়সে রবিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসকরা অপারেশন করার সময় ব্যাপক রক্ত রণ হলে তারা সম্পূর্ণ টিউমার অপসারনে ব্যর্থ হয়। এর কিছু দিন পর দেলোয়ারের বাকশক্তি বন্ধ হয়ে যায় এবং মাথা, পিঠ ও বুকসহ সারা দেহে টিউমার ছড়িয়ে পরে। টিউমারগুলো বিশাল আকার ধারণ করে দেহে মৌচাকের মত ঝুলে পড়ায় দেলোয়ার স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে পারছেনা। বর্তমানে দেলোয়ার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। মাহমুদা বেগম ৫ম শ্রেণীতে পড়ার সময় একদিন স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে আছাড় খেয়ে চোখে আঘাত পায়। আস্তে আস্তে নিভে যায় দু’চোখের আলো। ৯ বছর আগে পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার দরিদ্র আবুল কালামের সাথে বিয়ে হয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধি মাহমুদার। বিয়ের প্রায় ২ বছর পর সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় কালামের। ৪ মাসের শিশু সন্তান বাদশা ফাহাদকে নিয়ে মাহমুদা ফিরে আসে বাবার সংসারে। দেড় বছর পূর্বে খেলার সময় মাথায় আঘাত লাগলে চোখে সমস্যা দেখা দেয় ফাহাদের। দেশের নামকরা বিভিন্ন চু হাসপাতালে চিকিৎসা করেও কোন লাভ হয়নি বরঞ্চ আস্তে আস্তে নিভে যায় ফাহাদের দু’চোখের আলো। মা-ছেলে দু’জনই দৃষ্টি প্রতিবন্ধি। ফাহাদ বর্তমানে ঢাকা যাত্রাবাড়ি মদিনাতুল উলুম দৃষ্টি প্রতিবন্ধি হাফিজী মাদ্রাসায় পড়ে। আঃ মালেক মল্লিকের মেয়ে মাহমুদা ও নাতী বাদশা ফাহাদকে ২০১৮ সালে চিকিৎসার জন্য ভারতের কলিকাতা অদ্বিতীয়া বিড়লা শংকরা নেত্রালয় হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা চেন্নাইতে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। চেন্নাইতে চিকিৎসার জন্য মোটা অংকের টাকার প্রয়োজন। এ পর্যন্ত চিকিৎসায় কয়েক লাধিক টাকা ব্যায় করে সহায় সম্বল হারিয়ে ধার দেনায় জর্জড়িত হয়ে পড়েছে পরিবারটি। টাকার জন্য স্বজনরা হাটে-বাজারে, অফিস, স্কুল, মাদ্রাসা ও মসজিদে গিয়ে সবার কাছে হাত পাতছে। এ ভাবে এত বড় অংকের টাকা সংগ্রহ সম্ভব না। তাই সরকার এবং দানশীল বিত্তবানদের নিকট সাহায্যের হাত বাড়াবার জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছেন আঃ মালেক মল্লিক। সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা মোসাঃ মাহমুদা বেগম, অগ্রনী ব্যাংক মিরুখালী শাখা, সঞ্চয়ী হিসাব নং-০২০০০০৮৮৭১১২৫, মঠবাড়িয়া, পিরোজপুর অথবা বিকাশ নং-০১৭২৬১৫৬৯৮৯ ও ০১৭৭৩৮২০০৪৬।

আরো সংবাদ
পিরোজপুর পোষ্ট ২৪ ডটকম - ২০১৮-২২। (অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের ছবি, ভিডিও ও সংবাদ কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Theme Customized By PIROJPURPOST24
কারিগরি সহায়তায়: Website-open
x