1. pirojpurpost24@gmail.com : admin :
  2. kumarshuvoroy@gmail.com : Shuvo Roy : Shuvo Roy
  3. epiropur@gmail.com : e p : e p
  4. eshuvo1@gmail.com : shuvo roy : shuvo roy
চীনের বাজারই করোনার উৎপত্তিস্থল | পিরোজপুর পোষ্ট ২৪
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১১:১২ অপরাহ্ন

চীনের বাজারই করোনার উৎপত্তিস্থল

  • শেষ হালনাগাদ : সোমবার, ১ আগস্ট, ২০২২
  • ৪২ জন সংবাদটি দেখেছেন
ছবি : ইন্টারনেট

পিরোজপুর পোষ্ট : চীনের উহান শহরের হুয়ানান সি ফুড ও বন্যপ্রাণীর বাজার থেকেই যে করোনাভাইরাস মহামারির সূচনা হয়েছিল, তার বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ পাওয়ার কথা বলছেন বিজ্ঞানীরা।

বিবিসি জানিয়েছে, হুবেই প্রদেশের ওই শহরে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার তথ্যগুলো পুনরায় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে দুটি গবেষণায়, যার ফলাফল মঙ্গলবার প্রকাশিত হয়েছে।

বিবিসি লিখেছে, ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর প্রথম সংক্রমণের খবর গণমাধ্যমে এলেও ওই বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বরের শুরুর দিকেই মানুষের শরীরে করোনাভাইরাসের দুটি ধরন বিদ্যমান ছিল।

গবেষকরা বলছেন, ২০১৯ সালের শেষ দিকে হুয়ানানের বাজারে বিক্রি হওয়া জীবন্ত স্তন্যপায়ী প্রাণিগুলোতে সার্স-কভ-২ এর উপস্থিতি ছিল। সেই বাজারে কাজ কিংবা বাজার করতে আসা কেউ একজন প্রথম এসব প্রাণীর সংস্পর্শে এসে সংক্রমিত হয়েছিলেন।

এ গবেষণায় যুক্ত ইউনিভার্সিটি অব গ্লাসকোর ভাইরলোজিস্ট অধ্যাপক ডেভিড রবার্টসন বলেছেন, উহানের ল্যাব থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার যে সন্দেহ অনেকের মধ্যে আছে, তাদের গবেষণায় তা নিরসন হবে বলে তার প্রত্যাশা।

যে ভাইরাসের কারণে কোভিডের উৎপত্তি, তার চরিত্র বুঝতে দুই বছর ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছেন বিজ্ঞানীরা। তাতে নতুন নতুন যেসব তথ্য-উপাত্ত মিলছে, তাতে নতুন দৃষ্টিভঙ্গি থেকে এসব গবেষণা এগিয়ে নেওয়া সম্ভব হচ্ছে। মহামারির শুরুর দিকে সংক্রমণের তথ্য নিয়ে যে বিভ্রান্তির তৈরি হয়েছিল, তারও সমাধান এখন হচ্ছে।

সে সময় উহানের হাসপাতালে ভর্তি কোভিড রোগীদের মাত্র অর্ধেকের সঙ্গে হুয়ানান বাজারের সরাসরি যোগাযোগ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল। তাতে গবেষকরা বিভ্রান্তিতে পড়ছিলেন, তাদের ধারণা হচ্ছিল, এ ভাইরাস আসলে অন্য কোনো উৎস থেকে ছড়িয়েছে কি-না।

রবার্টসন বলেন, এখন এ ভাইরাস সম্পর্কে যত বেশি তারা জানতে পারছেন, তাদের সেই দ্বিধা কেটে যাচ্ছে। দেখা যাচ্ছে, মার্কেট নিয়ে তাদের যে ধারণা ছিল, সেটাই সঠিক।

কোভিড-১৯ এর উৎপত্তিস্থল শনাক্তের গবেষণায় দেখা গেছে, শুরুর দিকের রোগীদের একটি বড় অংশের সঙ্গে উহানের সেই বন্যপ্রাণীর বাজারের কোনো যোগসূত্র পাওয়া যাচ্ছিল না। অর্থাৎ তারা সেখানে কখনো কাজ করেননি, কিংবা বাজার করতেও যাননি। কিন্তু পরে গবেষণায় দেখা গেছে, তাদের অধিকাংশ ঐ মার্কেটের আশপাশের এলাকাতেই থাকেন।

ফলে ঐ বাজারই যে সংক্রমণ ছড়ানোর কেন্দ্রস্থল ছিল, বিজ্ঞানীদের সেই ধারণা শক্ত ভিত্তি পেয়েছে বলে জানান অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োলোজিস্ট অধ্যাপক মাইকেল ওরোবে।

তিনি বলেন, বাজারের বিক্রেতারা প্রথমে সংক্রমিত হয়েছিলেন এবং সেখান থেকেই আশপাশের কমিউনিটির মানুষের মধ্যে সংক্রমণের চেইন তৈরি হয়েছিল।

এই গবেষক বলেন, সাত হাজার ৭৭০ বর্গ কিলোমিটার আয়তনে উহান শহরে একেবারে প্রথম দিকে যারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাদের বাড়ি হুয়ানান বাজারের আশপাশে হওয়ার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।

গবেষকরা তাদের মনোযোগ ওই বাজারের ওপরই কেন্দ্রীভূত করেছেন। যেসব নালার পানিতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে, তার ভিত্তিতে একটি মানচিত্র তারা তৈরি করেছেন।

রবার্টসন বলেন, বেশিরভাগ পজিটিভ নমুনাগুলো বাজারের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকের এলাকার এবং এটি সেই জায়গা যেখানে রেকুনের মত জীবজন্তু বিক্রি হয়।

সুতরাং আমরা নিশ্চিত যে, সার্স-কভ-২ ভাইরাসের বাহক ওই প্রাণীগুলো ২০১৯ সালের শেষ দিকে সেখানে বিক্রি হয়েছিল।

আরো সংবাদ
পিরোজপুর পোষ্ট ২৪ ডটকম - ২০১৮-২২। (অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের ছবি, ভিডিও ও সংবাদ কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Theme Customized By PIROJPURPOST24
কারিগরি সহায়তায়: Website-open
x