1. pirojpurpost24@gmail.com : admin :
  2. kumarshuvoroy@gmail.com : Shuvo Roy : Shuvo Roy
  3. epiropur@gmail.com : e p : e p
  4. eshuvo1@gmail.com : shuvo roy : shuvo roy
কোটি টাকা নিয়ে দুই ভাই উধাও | পিরোজপুর পোষ্ট ২৪
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

কোটি টাকা নিয়ে দুই ভাই উধাও

  • শেষ হালনাগাদ : শুক্রবার, ২১ অক্টোবর, ২০২২
  • ১৪৯ জন সংবাদটি দেখেছেন

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বিভিন্ন ব্যাংক, এনজিও এবং স্থানীয় লোকদের থেকে কোটি টাকা নিয়ে রাতের আধাঁরে পালিয়ে গেছে দুই ভাই।

স্থানীয় মিরুখালী বাজারের মৃত মনোহর শীলের দুই ছেলে মিষ্টি ও ফল ব্যবসায়ী রনজিৎ সরকার (৫৫) এবং মুদি ও মনোহরী মালের পাইকারী ব্যবসায়ী ইন্দ্রজীৎ সরকার (৫০) বিভিন্ন জনকে জামিনদার বানিয়ে প্রায় কোটি টাকা নিয়ে গত ৬দিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ফলে জামিনদার এবং পাওনাদারদের মধ্যে চরম হতাশা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে মিরুখালী বাজারের ব্যবসায়ি ও সাধারণ লোকজনের সাথে কথা বলে এ তথ্য পাওয়া গেছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন দুই ভাই তাদের কোটি টাকা নিয়ে রাতের আধাঁরে ইন্ডিয়া পালিয়ে গেছে।

মিরুখালী বাজারের নিকটবর্তী মায়ের দোয়া বেকারীর মালিক মো. শাহিন হাওলাদার জানান, ইন্দ্রজীৎ তাকে জামিনদার করে এনজিও আশা থেকে ১০ লাখ, মঠবাড়িয়া ব্রাক ব্যাংক (এসএমই) থেকে ১০ লাখ, দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ (ব্যাংক) লিমিটেড থেকে ২ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছে।

অগ্রনী ব্যাংক মিরুখালী শাখা সূত্রে জানাযায়, দুই ভাই জমির দলিল দিয়ে প্রায় ১০ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে রেজাউল করিম নামে জনকৈ ব্যাক্তি ৫ লাখ টাকা পাওয়ার দাবী করে পোষ্ট দিয়েছেন। পান দোকানী মো. ফজলুল হক জানান তার কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে গেছে। এভাবে প্রতিদিন পাওনাদারের তালিকা লম্বা হচ্ছে বলে জানাগেছে।

মঠবাড়িয়া ব্রাক ব্যাংকের রিলেশন অফিসার মোঃ নূর আলম জানান, গত বছরের অক্টোবরে ২৪ মাস কিস্তিতে ইন্দ্রজীৎ সরকারকে ১০ লাখ টাকা লোন দেই। কিন্তু ওই লোক ১১ কিস্তি পরিশোধ করে বাকি টাকা না দিয়ে পালিয়ে যায়।

ব্রাক ব্যাংকের লিগ্যাল অফিসার মোঃ ইসা জানান, নির্দিষ্ট মেয়াদ উত্তীর্ন হলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ মামলা করবে। এতে উপকারভোগী ও জামিনদার উভয়ই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

মিরুখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও বাজার কমিটির সভাপতি মো. হানিফ খান জানান, বিষয়টি অত্যন্ত গর্হিত ও দুখ:জনক। টাকা উদ্ধারে কোন সহযোগিতার প্রয়োজন হলে তা করবেন বলে চেয়ারম্যান জানান।
এ ব্যাপরে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, বিষয়টি আমার অজানা। তবে ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযোগ করলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো সংবাদ
পিরোজপুর পোষ্ট ২৪ ডটকম - ২০১৮-২৩। (অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের ছবি, ভিডিও ও সংবাদ কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Theme Customized By PIROJPURPOST24
কারিগরি সহায়তায়: Website-open
x