1. pirojpurpost24@gmail.com : admin :
  2. kumarshuvoroy@gmail.com : Shuvo Roy : Shuvo Roy
  3. epiropur@gmail.com : e p : e p
  4. eshuvo1@gmail.com : shuvo roy : shuvo roy
ইন্দুরকানীতে বুলবুলের প্রভাবে জনমনে আতঙ্ক | পিরোজপুর পোষ্ট ২৪
শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন

ইন্দুরকানীতে বুলবুলের প্রভাবে জনমনে আতঙ্ক

  • শেষ হালনাগাদ : রবিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৪৪১ জন সংবাদটি দেখেছেন

জে. আই লাভলু : পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে ১০ নাম্বার মহাবিপদ সংকেতের কারনে সর্বস্তরের জনসাধারনের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। শনিবার সকাল থেকে ভারি বৃষ্টি হচ্ছে এই উপজেলায়। বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে মাইকিং করে জনসাধারনকে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডব মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসন ব্যপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।
নদী বেষ্ঠিত ইন্দুরকানী উপজেলার খোলপুটিয়া, চন্ডিপুর, চরবলেশ্বর, বেপসাবুনিয়া, কালাইয়া, টগড়াসহ পাড়েরহাট উপকুলিয় অঞ্চলের বাসিন্দার রয়েছে ঝুঁকির মধ্যে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা চেয়ারম্যান শনিবার সকাল থেকে উপজেলার ঘুর্নিঝর আশ্রয় কেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করেন এবং ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসন একটি কন্ট্রোল রুম এবং উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে তিনটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।
সময় যত গড়িয়ে যাচ্ছে স্বাভাবিকের তুলনায় নদীতে জোয়ারের পানিও বৃদ্ধি পাচ্ছে। অধিকাংশ ধান ক্ষেত ডুবে যেতে শুরু করেছে। উপজেলার তিনদিক থেকে নদী বেষ্টিত হওয়ায় এখানে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান অনেক বেশি হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে। শনিবার সকাল থেকে একটানা বৃষ্টি ও হালকা বাতাস বইছে। জনসাধারনের জীবনযাত্রা ব্যহত হয়ে পরছে। নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ২ থেকে ৩ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। তিন দিক নদী বেষ্টিত ইন্দুরকানী উপজেলাটি ঘুর্নিঝড় বা জলোচ্ছাস হলে ব্যপক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।
এদিকে, উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে ১৯ টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জন সাধারনকে নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণ করার জন্য মসজিদে মসজিদে চলছে মাইকিং। এছাড়া প্রতিটি গ্রামে পৃথক পৃথক মাইকিং করা হচ্ছে। এমনকি উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদকেও মাইকিং করতে দেখা গেছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, আশ্রয়ন কেন্দ্রগুলোতে জনসাধারন আসা শুরু করেছে। সন্ধ্যার মধ্যে আশ্রয় কেন্দ্রে শুকনো খাবার বিতরণ করা হবে। সন্ধ্যার মধ্যে যদি কেউ আশ্রয় কেন্দ্রে না আশে প্রয়োজনে তাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর (পুলিশ) মাধ্যমে নিয়ে আশা হবে। দশ হাজার মানুষের জন্য শুকনা খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিশুদ্ধ পানি, খাবার স্যালাইন, দিয়াশ লাইট, মোমবাতির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

আরো সংবাদ
পিরোজপুর পোষ্ট ২৪ ডটকম - ২০১৮-২২। (অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের ছবি, ভিডিও ও সংবাদ কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Theme Customized By PIROJPURPOST24
কারিগরি সহায়তায়: Website-open
x